রাজনীতি

ববি হাজ্জাজের রাজনৈতিক দলের নিবন্ধন কেন দিবেনা জানতে চেয়ে হাইকোর্টের রুল

বার্তাবাহকঃ ববি হাজ্জাজের নতুন রাজনৈতিক দল জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম)-এর নিবন্ধন আবেদন বাতিল করে দেওয়া নির্বাচন কমিশনের চিঠি কেন অবৈধ ঘোষণা করা হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। পাশাপাশি এনডিএম’কে নতুন রাজনৈতিক দল হিসেবে নিবন্ধনের জন্য কেন নির্দেশনা দেওয়া হবে না তাও জানতে চেয়েছেন আদালত।

দুই সপ্তাহের মধ্যে নির্বাচন কমিশনার, নির্বাচন কমিশন সচিবসহ তিন জনকে এই রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

এক রিট আবেদনের প্রাথমিক শুনানি নিয়ে রবিবার (৮ জুলাই) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামালের সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্ট বেঞ্চ এ রুল জারি করেন।

আদালতে এনডিএম-এর রিট আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার আখতার ইমাম। সঙ্গে ছিলেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল একরামুল হক টুটুল।

এর আগে ২৭ জুন এনডিএ‘র নিবন্ধন চেয়ে করা আবেদনটি দুই সপ্তাহের মধ্যে নিষ্পত্তি করতে নির্বাচন কমিশনকে নির্দেশ দিয়েছিলেন হাইকোর্ট।

এ প্রসঙ্গে ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম বলেন, ‘দলটির গঠনতন্ত্র নিয়ে এর আগে নির্বাচন কমিশন আপত্তি জানিয়েছিলো। তার পরিপ্রেক্ষিতে আমরা গঠনতন্ত্র সংশোধন করে পুনরায় তা নির্বাচন কমিশনে জমা দেই। এরপর হাইকোর্টের এক নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে কমিশন থেকে আমাদের চিঠি দিয়ে জানানো হয়, আমরা আমাদের গঠনতন্ত্র যেভাবে সংশোধন করেছি তা আমাদের গঠনতন্ত্র মোতাবেক সংশোধন করিনি। কিন্তু গঠনতন্ত্র মোতাবেক সংশোধন প্রক্রিয়া না হওয়ার কোনও কারণ তারা চিঠিতে ব্যাখ্যা করেনি। তাই নির্বাচন কমিশনের সেই চিঠি আমরা আজ হাইকোর্টে উপস্থাপন করি। তখন আদালত চিঠিতে আবেদন বাতিলের গ্রহণযোগ্য কোনও কারণ উল্লেখ্য না থাকায় তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেন।’

দলটির চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ বলেন, ‘২৭ জুন হাইকোর্টের আদেশের পর ২৮ জুন আমরা নির্বাচন কমিশন থেকে একটি চিঠি পাই। চিঠিতে নিবন্ধন আবেদন বাতিলের কোনও স্পষ্ট কারণ উল্লেখ ছিলো না। তাই চিঠির বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করা হলে আদালত দুই সপ্তাহের রুল জারি করেছেন।’

প্রসঙ্গত, জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ তাদের রাজনৈতিক দলের নিবন্ধনের জন্য নির্বাচন কমিশন বরাবর একটি আবেদন করেছিলেন গত বছরের ডিসেম্বরে। নির্বাচন কমিশনের সিডিউল অনুসারে গত বছরের ডিসেম্বরের আবেদনগুলো এই বছরের মার্চ মাসের মধ্যে নিষ্পত্তি করে নতুন রাজনৈতিক দলগুলোর তালিকা বের প্রকাশের কথা ছিলো। কিন্তু মার্চ মাস পেরিয়ে গেলেও কোনও জবাব না পেয়ে ২৭ জুন নির্বাচন কমিশনের ওপর নির্দেশনা চেয়ে রিট দায়ের করা হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে এনডিএম-এর আবেদনটি নিষ্পত্তি করতে সময় বেধে দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। এরপর দলটির নিবন্ধন আবেদন বাতিল ঘোষণা করে চিঠি দেয় নির্বাচন কমিশন। সেই চিঠির বৈধতা প্রশ্নে হাইকোর্টে রিট দায়ের করেন দলটির চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ।

 

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close