আলোচিত

ডাঙ্গায় করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত, কালীগঞ্জে আতঙ্ক: খেয়াঘাট বন্ধ ঘোষণা

বার্তাবাহক ডেস্ক : নরসিংদীর পলাশে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়েছে ডাঙ্গা ইসলামপাড়া এলাকার এক বাসিন্দা। এরপর ইসলামপাড়া এলাকা লকডাউন ঘোষণা করেছে নরসিংদীর জেলা প্রশাসন। আর এ খবরে পার্শ্ববর্তী এলাকা হিসেবে আতঙ্ক ছড়িয়ে পরে কালীগঞ্জেও।

সোমবার রাতে তাৎক্ষণিক শীতলক্ষ্যা নদী পারাপারে কালীগঞ্জ খেয়াঘাট দিয়ে নৌকা চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেন কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. শিবলী সাদিক।

করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্তের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ও নরসিংদী করোনা প্রতিরোধ জরুরি সেলের প্রধান ইমরুল কায়েস।

এদিকে আতঙ্ক প্রকাশ করে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক অনেকেই বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য পোস্ট দিতে থাকেন।

কালীগঞ্জ পৌরভার ফেসবুকেও এ সংক্রান্ত একটি পোস্ট করা হয়েছে, তাতে লেখা রয়েছে ‘সম্মানিত কালীগঞ্জ পৌরবাসী বিভিন্ন সংবাদ ম্যাধমের সূত্রে জানতে পারলাম যে, নরসিংদীর পলাশ উপজেলার অন্তর্গত ইসলামপাড়া গ্রামে করোনা আক্রান্ত একজন রোগী পাওয়া গেছে। ডাংগা ইউনিয়নের শত শত লোক প্রতিদিন কালীগঞ্জ বাজারে আসা যাওয়া করে, এমতাবস্থায় ঐ এলাকার লোকদের সাথে দূরত্ব বজায় রেখে চলাচল করবেন এবং প্রয়োজন ছাড়া ঐ এলাকায় যাবেন না। আপনি নিরাপদ থাকবেন এবং অন্যজনকে নিরাপদে রাখবেন’।

আর এই পোস্টে অনেকই বিভিন্ন ধরনের মন্তব্য করেছেন।

প্রহ্লাদ ঘোষ নামে একজন মন্তব্য করে লিখেছেন, ‘প্রয়োজনে দেরি না করে কাল থেকে গুদারা ঘাট বন্ধ করে দিন’।

সাইফুল ইসলাম মন্তব্য করে লিখেছেন, ‘এখন নৌকা বন্ধ করে দেওয়ার জন্য পৌরসভার দৃষ্টি আকর্ষন করছি’

মোরশেদুল আলম রুবেল মন্তব্য করেছন, ‘নদীপথের যাতায়াত এই মুহুর্তে বন্ধ করা দরকার। খেয়াঘাট বন্ধ করতেই হবে। নয়তো কালীগঞ্জে পৌছতে সময় লাগবে না’।

কিবরিয়া রাব্বি নামে আরেকজন তার ফেসবুকে পোস্ট করেন, ‘নরসিংদী জেলার পলাশ থানার ডাঙ্গা ইউনিয়নের ইসলাম পাড়া গ্রামে একজন করোনা রোগী সনাক্ত হয়েছে
তথ্যসূত্র : ইসলামপাড়ার মসজিদের মাইক থেকে ভেসে আসা ঘোষণা এবং স্থানীয় ভাই-ব্রাদার #কালীগঞ্জ ও ডাঙ্গাবাসি সাবধানে থাকি,ঘরে থাকি’।

এরকম আরো অসংখ্য মন্তব্য এখন ঘুরপাক খাচ্ছে নেটিজেনদের মধ্যে।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে এসব মন্তব্য নজরে আসলে তাৎক্ষণিক শীতলক্ষ্যা নদী পারাপারে কালীগঞ্জ বাজার এলাকায় থাকা খেয়াঘাট দিয়ে নৌকা চলাচল বন্ধের নির্দেশ দেন কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. শিবলী সাদিক।

কালীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মো. শিবলী সাদিক বলেন, নরসিংদীর পলাশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হওয়ার তথ্য জানার পর শীতলক্ষ্যা নদী পারাপারে কালীগঞ্জ বাজার এলকার খেয়াঘাট দিয়ে নৌকা চলাচল বন্ধের নির্দেশ দিয়েছি। এছাড়াও পলাশ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (অতিরিক্ত দায়িত্ব) ফারহানা আলীর সঙ্গে কথা বলে নদীর ওই প্রান্তের ঘাটটিও বন্ধের পরামর্শ দিয়েছি।

এছাড়াও কালীগঞ্জে করোনা প্রতিরোধে ‘শীতলক্ষ্যা নদী পারাপারে কালীগঞ্জ অংশে থাকা বাকী খেয়াঘাট দিয়ে নৌকা চলাচল বন্ধ করা হবে বলেও জানান ইউএনও’।

কালীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) একেএম মিজানুল হক বলেন, এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, করোনাভাইরাসে আক্রান্ত ওই রোগী পলাশ উপজেলার ডাঙ্গা ইসলামপাড়া এলাকার বাসিন্দা। ওই ব্যক্তি নারায়ণগঞ্জে চাকরি করেন। করোনা উপসর্গ দেখা দেওয়ার পর রোববার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নমুনা দিয়ে আসেন। পরে আজ সোমবার রাতে পাওয়া রিপোর্টে ফলাফল পজেটিভি আসে।

নরসিংদীর অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) ও নরসিংদীর করোনাভাইরাস প্রতিরোধ জরুরি সেলের প্রধান অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক ইমরুল কায়েস বলেন, আপাতত এলাকাটি লকডাউন করে ওই ব্যক্তিকে তাঁর বাসায় হোম আইসোলেশনে রাখা হয়েছে। পরবর্তীতে তাকে হাসপাতাল আইসোলেশনে নেওয়া হবে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close