আলোচিতসারাদেশ

কালীগঞ্জে অবৈধ ব্যাটারি ফ্যাক্টরিতে ডাকাতদের হামলা, শর্টগান লুট, গানম্যান আহত

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুরের কালীগঞ্জে কোন নিয়ম নীতির তোয়াক্কা না করেই উন্মুক্ত পরিবেশে অবৈধভাবে পরিচালিত ‘এইচকিউ লিড’ নামের একটি ব্যাটারি ফ্যাক্টরিতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতদলের সদস্যদের ওই ফ্যাক্টরিতে কর্মরত সিকিউরিটি গার্ডের (গানম্যান) উপর হামলা চালিয়ে শর্টগান লুট করেছে।

মঙ্গলবার (২১ এপ্রিল) দিবাগাত রাত দুইটার দিকে কালীগঞ্জ পৌরসভার বালীগাঁও গ্রামে নদীর জমি দখল করে পরিচালিত ওই ফ্যাক্টরিতে এ ঘটনা ঘটেছে।

ডাকাতদের হামলায় আহত সিকিউরিটি গার্ড (গানম্যান) তুহিন। সে বর্তমানে ঢাকার শেরে বাংলা নগর ক্রিসেন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

ফ্যাক্টরিতে কর্মরত সুপারভাইজার মো: হোসেন আলী ও শ্রমিকরা বলেন, মঙ্গলবার দিবাগাত রাত দুইটার দিকে নৌকা নিয়ে এসে ফ্যাক্টরির পেছন দিক দিয়ে ৮-৯ জন ডাকাত ভেতরে প্রবেশ করে। ডাকাতদের মুখে কাপড় বাঁধা ছিল। তাদের বয়স ১৮-২৫ এর মধ্যে হবে। তারা প্রথমে গানম্যান তুহিনের উপর হামলা চালিয়ে তার সাথে থাকা শর্টগান লুট করে। পরে ফ্যাক্টরিতে থাকা আরো তিন শ্রমিক সুজন, নাঈম ও আলমগীর এবং একজন গার্ডকে ধরে বাহিরে নিয়ে বেঁধে রাখে। বাহিরে আরো প্রায় ৮-৯ জন ডাকাত ফ্যাক্টরির চারপাশ পাহাড়া দিচ্ছিল। এমন সময় খবর পেয়ে পুলিশ আসলে ডাকাতদলের সদস্যরা নৌকায় করে কালীগঞ্জের দিকে পালিয়ে যায়। ডাকাতদের ছুরিকাঘাতে গানম্যান তুহিনের দুই হাত ও পিঠ আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। গানম্যান তুহিন বর্তমানে ঢাকার শেরে বাংলা নগর ক্রিসেন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। তবে ডাকতদলের সদস্যরা ফ্যাক্টরির অন্য কোন মালামাল লুট করেনি।

গানম্যান তুহিনের চাচা শরীফুল বলেন, ডাকতদের হামলায় তুহিনের দুই হাত ও পিঠে আঘাতপ্রাপ্ত হয়েছে। সে বর্তমানে শেরে বাংলা নগর ক্রিসেন্ট হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) সোহেল মোল্যা বলেন, ডাকাতির খবর পেয়ে রাত ২.৩৫ মিনিটে ‘এইচকিউ লিড’ নামের ওই ফ্যাক্টরিতে যাই। পরে শ্রমিকদের দেওয়া তথ্য মতে নৌকা নিয়ে শীতলক্ষ্যা নদীর বিভিন্ন স্থানে অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। ডাকতদের হামলায় তুহিন নামে এক গানম্যান আহত হয়েছে। ডাকাতদের আটক করতে বিভিন্ন স্থানে অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

তবে শর্টগান লুটের বিষয়ে কোন তথ্য জানা নেই বলে জানান এসআই সোহেল মোল্যা।

উল্লেখ্য : ২০১৯ সালের ১৭ জানুয়ারি নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে বিআইডব্লিউটিএ উচ্ছেদ অভিযান পরিচালনা করে নদীর জমি দখলের অভিযোগে ফ্যাক্টরিটি বন্ধ করে দিয়েছিল।

এছাড়াও অবৈধভাবে পরিচালিত ‘এইচকিউ লিড’ নামের ওই ব্যাটারি ফ্যাক্টরিতে বিভিন্ন সময় মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে পরিবেশ দূষণের দায়ে ফ্যাক্টরিটি বন্ধ করেছিল উপজেলা প্রশাসন।

এরপরও কোন রকম ছাড়পত্র ছাড়াই অবৈধভাবে পরিচালনা করে আসছিল ফ্যাক্টরিটি। এতে চরমভাবে ওই এলাকার পরিবেশ দূষিত এবং ফ্যাক্টরির দূষিত বর্জ্যের কারণে নদী দূষিত হচ্ছে।

 

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close