আলোচিতসারাদেশ

শ্রীপুরের চাঞ্চল্যকর ফোর মার্ডার: আরও পাঁচজনকে আটক করেছে র‍্যাব

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুরের শ্রীপুর আবদার এলাকায় ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক এক নারী ও তার তিন সন্তানকে গলাকেটে হত্যা ও ধর্ষণের চাঞ্চল্যকর ঘটনায় পাঁচজনকে শ্রীপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে আটক করেছে র‍্যাব।

বুধবার (২৯ এপ্রিল) বিকেলে র‌্যাবের আইন ও গণমাধ্যম শাখার জ্যেষ্ঠ সহকারী পরিচালক সহকারী পুলিশ সুপার সুজয় সরকার এ তথ্য জানিয়েছেন।

তিনি জানান, আটকদের কাছ থেকে লুট করা নগদ অর্থ, স্বর্ণালঙ্কার ও তাদের পরিধেয় রক্তমাখা পোশাক উদ্ধার করা হয়েছে। এ বিষয়ে অনলাইনে ব্রিফ করে বিস্তারিত জানানো হবে বলেও জানান তিনি।

গত ২৩ এপ্রিল বিকেলে গাজীপুরের শ্রীপুর উপজেলার জৈনাবাজার এলাকার একটি বাড়ি থেকে এক প্রবাসীর স্ত্রী, দুই মেয়ে ও এক ছেলের গলাকাটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

এ ঘটনায় গত রোববার (২৬ এপ্রিল) রাতে শ্রীপুরের আদাবর এলাকা থেকে পারভেজ নামে একজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ ব্যুরো ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)। পিবিআই’র দাবি আটক পারভেজ খুনের ঘটনার মূল হোতা।

অপরদিকে ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক এক নারী ও তার তিন সন্তানকে গলা কেটে হত্যার ঘটনায় দায়ের করা চাঞ্চল্যকর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ও শ্রীপুর মডেল থানার দুই পরিদর্শককে প্রত্যাহার করা হয়েছে।

 (২৮ এপ্রিল) মঙ্গলবার রাতে এক আদেশে তাদেরকে প্রত্যাহার করে গাজীপুর জেলা পুলিশ লাইনে সংযুক্ত করা হয়।

প্রসঙ্গত, গত বৃহস্পতিবার (২৩ এপ্রিল) বিকেলে শ্রীপুরের আবদার এলাকার একটি বাড়ি থেকে ইন্দোনেশিয়ার নাগরিক মা স্মৃতি ফাতেমা, দুই মেয়ে ও এক ছেলের গলা কেটে হত্যার পর মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। ২২ এপ্রিল (বুধবার) দিবাগত রাতের কোনো এক সময় দুর্বৃত্তরা চারজনকে গলা কেটে হত্যা করে। নিহতরা হলেন আবদার এলাকার প্রবাসী রেদোয়ান হোসেন কাজলের স্ত্রী ইন্দোনেশিয়ান নাগরিক স্মৃতি আক্তার ফাতেমা (৪৫), তার বড় মেয়ে সাবরিনা সুলতানা নূরা (১৬), ছোট মেয়ে হাওয়ারিন (১২) ও প্রতিবন্ধী ছেলে ফাদিল (৮)। এ ঘটনায় কাজলের বাবা আবুল হোসেন বাদী হয়ে অজ্ঞাত আসামীদের বিরুদ্ধে শ্রীপুর থানায় মামলা দায়ের করেন। পরে রবিবার (২৬এপ্রিল) দিবাগত রাতে হত্যার ঘটনায় জড়িত একই এলাকার কাজিম উদ্দিনের ছেলে কিশোর পারভেজকে (১৭) গ্রেপ্তার করে গাজীপুরের পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close