সারাদেশ

রূপগঞ্জে বাড়ছে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ, শনাক্ত ৫১ জন

বার্তাবাহক ডেস্ক : নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে দিন দিন করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বাড়ছে। এ পর্যন্ত উপজেলায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৫১ জন। যদিও দুদিন আগে আক্রান্তের সংখ্যা ছিল মাত্র ১৯ জন। অর্থাৎ গত ৪৮ ঘণ্টায় নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৩২ জন। হঠাৎ করে আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে যাওয়া আতঙ্কিত হয়ে পড়েছে মানুষ।

জেলা সিভিল সার্জন ও রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, ইউএস বাংলা ও রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পাঁচ শতাধিক রোগীর নমুনা সংগ্রহের পর ৩৯ জনের করোনা পজেটিভ আসে। এছাড়াও রূপগঞ্জের বিভিন্ন স্থানের বসবাসকারী নাগরিকদের মধ্যে আরও ১২ জন রাজধানীর বিভিন্ন হাসপাতাল থেকে পরীক্ষা করার পর তাদের পজেটিভ পাওয়া যায়।

আক্রান্তদের মধ্যে গত ২৪ ঘণ্টায় পাঁচজন সুস্থ হয়েছেন। আক্রান্তদের মধ্যে যাদের শারীরিক অবস্থা দুর্বল নয় তাদের বাড়িতে চিকিৎসা নিতে পরামর্শ দিয়েছে উপজেলা স্বাস্থ্য বিভাগ।

এসব বিষয়ে রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পণা কর্মকর্তা ডাক্তার সাইদ আল মামুন বলেন, সরকারি নির্দেশনা রয়েছে করোনা আক্রান্ত রোগী যাদের শারীরিক অবস্থা কিছুটা ভালো তারা বাড়িতে আইসোলেশনে থেকে চিকিৎসা নিবেন। তাই তাদের বাড়িতে রাখা হচ্ছে। তাছাড়া ৫০ শয্যা বিশিষ্ট হাসপাতালে তাদের জন্য পর্যাপ্ত সুবিধা নেই। এখন রোগী যেভাবে বাড়ছে তাতে বিকল্প ব্যবস্থা গ্রহণের জন্য ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানিয়েছি।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মমতাজ বেগম বলেন, করোনাভাইরাস পরিস্থিতিতে প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে আমরা মানবিক দৃষ্টিকোণ নিয়ে মাঠে থেকে মোকাবেলা করছি। রূপগঞ্জ উপজেলায় কোনো ব্যক্তি করোনা আক্রান্ত হলে তাদের সঙ্গে যোগাযোগ রাখছি। তাদের মধ্যে যারা গরিব, অসহায় তাদের চিকিৎসা, খাবারসহ নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিচ্ছি। তারপরও সামনের পরিস্থিতির জন্য আরও উন্নত ব্যবস্থা গ্রহণ জরুরি।

সেবাদানকারীদের নিরাপত্তা সরঞ্জাম আরও প্রয়োজন।

সিভিল সার্জন ডাক্তার ইমতিয়াজুর রহমান বলেন, নারায়ণগঞ্জ জেলার করোনা সংক্রমণ ক্রমেই বাড়ছে। যেসব উপজেলায় পর্যাপ্ত ব্যবস্থা নেই জেলার সঙ্গে সমন্বয় করে চিকিৎসার ব্যবস্থা করা হবে। তবে রোগী ও স্বজন কিংবা প্রতিবেশীরা যেন আতঙ্কিত না হয় সেজন্য সচেতন নাগরিকদেরও এগিয়ে আসতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি মানা ছাড়া কোনো বিকল্প নেই।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close