গাজীপুরবদলি-প্রদায়ন

জিএমপি’র নতুন কমিশনার খন্দকার লুৎফুল কবির

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার হিসেবে খন্দকার লুৎফুল কবিরকে (পিপিএম-সেবা) পদায়ন করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতির আদেশক্রমে বুধবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের পুলিশ শাখা-১-এর উপসচিব ধনঞ্জয় কুমার দাস স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে গত ৩১ আগস্ট (সোমবার) গাজীপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার মো. আনোয়ার হোসেনকে চট্টগ্রাম রেঞ্জের উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক (ডিআইজি) পদে পদায়ন করা হয়েছে। গাজীপুর মহানগর পুলিশ কমিশনার হিসেবে তার স্থলাভিষিক্ত হচ্ছেন খন্দকার লুৎফুল কবির।

খন্দকার লুৎফুল কবির বর্তমানে খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। এর আগে ২০১৯ সালের ১১ এপ্রিল তিনি খুলনা মেট্রোপলিটন পুলিশের (কেএমপি) কমিশনার হিসেবে যোগদান করেছিলেন।

এছাড়াও একই প্রজ্ঞাপনে উপ-পুলিশ মহাপরিদর্শক বিশেষ শাখার (এসবি) মাসুদুর রহমান ভূঁইয়াকে পুলিশ কমিশনার খুলনা মহানগর পুলিশে, উপ-পুলিশ কমিশনার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের মুনতাসিরুল ইসলামকে পুলিশ সুপার ঝিনাইদহ জেলায়, ঝিনাইদহ জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ হাসানুজ্জামানকে পুলিশ সুপার কক্সবাজার জেলায়, রাজশাহী জেলার পুলিশ সুপার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহকে উপ-পুলিশ কমিশনার ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে এবং কক্সবাজার জেলার পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেনকে পুলিশ সুপার রাজশাহী জেলায় বদলি করা হয়েছে।

খন্দকার লুৎফুল কবির বাংলাদেশ সিভিল সার্ভিস (বিসিএস) ১৫ তম ব্যাচে পরীক্ষার মাধ্যমে ১৯৯৫ সালে পুলিশ ক্যাডারে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে বাংলাদেশ পুলিশ বাহিনীতে যোগদান করেন।

পরবর্তীতে তিনি সহকারী পুলিশ সুপার হিসেবে হবিগঞ্জ সদর এবং খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলার ডিএসবিতে দায়িত্ব পালন করেছেন।

সহকারী পরিচালক হিসেবে পুলিশ স্টাফ কলেজে এবং এএসপি হিসেবে লক্ষীপুর, নারায়নগঞ্জ ও নেত্রকোনা জেলায় সার্কেলের দায়িত্ব পালন করেছেন।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে পদোন্নতির পর তিনি আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন (এপিবিএন) এবং অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হিসেবে কুমিল্লায় দায়িত্ব পালন করেন।

এরপর পদোন্নতির পেয়ে পুলিশ সুপার হিসেবে ঝালকাঠি, খাগড়াছড়ি পার্বত্য জেলা, নোয়াখালী জেলায় এবং ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) মিরপুর ও গুলশান বিভাগে উপ-পুলিশ কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন। এছাড়াও অতিরিক্ত ডিআইজি হিসেবে পদোন্নতির পর তিনি র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়নে (র‌্যাব) দায়িত্ব পালন করেছে। ডিআইজি হিসেবে পদোন্নতির পর অ্যান্টি টেররিজম ইউনিটে (এটিইউ) কর্মরত ছিলেন।

এছাড়াও খন্দকার লুৎফুল কবিরকে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষা মিশনে কসোভো ও সাউথ সুদানে দায়িত্ব পালন করেছেন।

পুলিশের বিভিন্ন ক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখার জন্য তিনি প্রেসিডেন্ট পুলিশ মেডেল (পিপিএম) সেবা পদক এবং আইজিপি এক্সপ্লোরারি গুড সার্ভিস (আইজিপি ব্যাজ) পদকে ভূষিত হয়েছেন। তিনি দেশে-বিদেশে বিভিন্ন প্রশিক্ষণ গ্রহণ করেছেন।

খন্দকার লুৎফুল কবির ১৯৬৯ সালের ১লা জানুয়ারী নরসিংদী পৌরসভার কান্দাপাড়া গ্রামের এক মুসলিম সমভ্রান্ত পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। খন্দকার লুৎফুল কবিরের পিতা মৃত খন্দকার হুমায়ুন কবির এবং মাতার নাম লুৎফা বেগম।

 

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close