আন্তর্জাতিক

আবারও ট্রাম্পকে নোবেল দেওয়ার দাবি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : কিছুদিন আগেই যুক্তরাষ্ট্রের একদল রাজনীতিবিদ সে দেশের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনীত করে নোবেল কমিটি বরাবর এক আবেদন পাঠিয়েছিলেন। একই কথা বলেছিলেন দক্ষিণ কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে-ইন। এবার নরওয়ের দুই রাজনীতিবিদ ট্রাম্পকে নোবেলের উপযুক্ত বলে দাবি করেছেন।

বুধবার নরওয়ের বার্তা সংস্থা এনটিবিকে এই কথা জানিয়েছেন রাজনীতিবিদ ক্রিস্টিয়ান টাইব্রিং-গিয়েড এবং পার-উইলি অ্যামুন্ডসেন। খবর ইন্ডিপেন্ডেন্ট।

অভিবাসনবিরোধী এই দুই রাজনীতিবিদ দাবি করেন, দক্ষিণ কোরিয়ার সঙ্গে শান্তি স্থাপন এবং নিরস্ত্রীকরণে এক বিশাল ও গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নিয়েছেন ট্রাম্প। ট্রাম্পের সঙ্গে উত্তর কোরিয়ার রাষ্ট্র নেতা কিম জং উনের বৈঠক প্রসঙ্গে অ্যামুন্ডসেন বলেন, ‘এখন যা হচ্ছে তা রীতিমতো ঐতিহাসিক। ভবিষ্যতে বিশ্ব শান্তি নিশ্চিত করার প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। এটি খুবই নাজুক একটি পরিস্থিতি, কিন্তু তা থেকে ভালো ফলাফল বের করে আনার চেষ্টা করা উচিত আমাদের।’

উল্লেখ্য যে, এ বছরের নোবেল পুরস্কারের জন্য মনোনয়নের সময়সীমা ইতোমধ্যেই পার হয়ে গেছে। এ কারণে ডোনাল্ড ট্রাম্পকে মনোনীত করা হয়েছে আগামী বছরের জন্য। ২০১৮ সালে রেকর্ডসংখ্যক, ৩৩০ জনকে নোবেলের জন্য মনোনীত করা হয়েছে।

অতীতে রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং কিউবার সাবেক নেতা ফিদেল কাস্ত্রোকে নোবেলের জন্য মনোনীত করা হয়েছিল। যুক্তরাষ্ট্রের সাবেক প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছিলেন।

ট্রাম্প ও কিমের মধ্যে ঐতিহাসিক বৈঠকটি ১২ জুন মঙ্গলবার সিঙ্গাপুরে শেষ হয়েছে। ঐতিহাসিক এ বৈঠকটি নিয়ে সারা বিশ্বের আগ্রহ ছিল তুঙ্গে। সারাদিনের বৈঠক শেষে তারা এক চুক্তিপত্রে সই করেন। তবে অনেকেই বলছেন, এই বৈঠকে ট্রাম্পই বরং পিছু হটেছেন। কারণ চুক্তির ভাষায় মনে হচ্ছে ট্রাম্পই কিমকে বেশি ছাড় দিচ্ছেন।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close