রাজনীতি

স্থানীয় প্রশাসন গণহারে বিএনপির নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করছে: হাসান সরকার

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনিত মেয়র পদ প্রার্থী হাসান উদ্দিন সরকার দাবি করেছেন, আওয়ামী লীগ প্রার্থীর পরাজয় নিশ্চিত জেনেই বিএনপির নেতাকর্মীদের গণহারে গ্রেফতার করা হচ্ছে। তিনি বলেছেন, ‘গতকাল (বুধবার) প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সঙ্গে আমাদের আলোচনা হয়েছে। তিনি সুষ্ঠু নির্বাচনের আশ্বাস দিয়েছেন। কিন্তু এরপর থেকে পরিস্থিতি উল্টো। স্থানীয় প্রশাসন গণহারে আমাদের নেতা-কর্মীদের গ্রেফতার করছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘নির্বাচনি সুষ্ঠু পরিবেশের ব্যত্যয় ঘটছে। দ্রুত এ অবস্থার উন্নতি না হলে সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।’

বৃহস্পতিবার টঙ্গি কলেজ গেট এলাকায় নিজের বাসভবনে নির্বাচনি পর্যবেক্ষণ সংস্থা ডেমোক্রেসি ইন্টারন্যাশনাল এর তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দলের সঙ্গে আলোচনা শেষে সাংবাদিকদের তিনি এসব কথা বলেন।

হাসান উদ্দিন সরকার বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের আশ্বাসের পরও গতকাল কাশিমপুর ও কোনাবাড়ি অঞ্চলের অধিকাংশ দায়িত্বশীল নেতাকর্মীর বাড়িতে ঢাকা ডিবি পুলিশ তল্লাশি চালায়। নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্যসহ বিভিন্ন নেতাকর্মীর বাড়িতে তল্লাশি চালানো হয়। পুলিশ আওয়ামী লীগের ৫০ থেকে ৬০ জন ক্যাডার নিয়ে রাতে আমাদের নেতাকর্মীদের বাড়িতে অভিযান চালায়। এ সময় তারা সেসব বাসায় ভাঙচুর চালায় ও অশ্লীল ভাষায় গালিগালাজ করে।’

তিনি অভিযোগ করে বলেন, ‘আওয়ামী লীগ প্রার্থী তাদের নিশ্চিত হার জেনেই স্থানীয় প্রশাসনের মাধ্যমে গণহারে আমাদের নেতাকর্মীদের গ্রেফতার করছে।’

প্রচার-প্রচারণায় বিঘ্ন ঘটছে কিনা জানতে চাইলে হাসান সরকার বলেন, ‘স্থানীয় প্রশাসনের গণগ্রেফতারের কারণে ও নেতাকর্মীরা পলাতক থাকলে সেটা তো হবেই। আজ আমরা গাজীপুর রিটার্নিং কর্মকর্তার অফিসে যাবো। সেখানে গিয়ে এ বিষয়ে আলোচনা করবো। দ্রুত এ অবস্থার উন্নতি না হলে আমি কঠিন সিদ্ধান্ত নেবো। দুনিয়াবাসীকে অবাক করে দেওয়ার মতো কিছু করবো। পৃথিবীতে সপ্তম আশ্চর্য আছে, আমি গাজীপুর অষ্টম আশ্চর্য সৃষ্টি করে নির্বাচনি পরিবেশ তৈরি করবো।’

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘জামায়াতে ইসলামী আমাদের সঙ্গে আছে। তারা নির্বাচনি প্রচার-প্রচারণা চালাচ্ছে।’

 

সূত্র:বাংলা ট্রিবিউন

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close