রাজনীতি

দুই দলের কেন্দ্রীয় নেতারা এক সঙ্গে নির্বাচনী প্রচারে!

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে প্রচারে গিয়ে হঠাৎ দেখা হয়ে গেল ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতাদের। দুই দলের কেন্দ্রীয় নেতারা বেশ কিছুটা সময় কথা বলেন, একে-অপরের কুশল বিনিময় করেছেন। এক সঙ্গে দুই দলের কেন্দ্রীয় নেতাদের আলাপ করতে দেখে সেখানে স্থানীয় মানুষের ভিড় জমে যায়। অনেকে তাদের সঙ্গে সেলফি, ফটো তোলেন।

শুক্রবার সকালে গাজীপুর শহরে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতারা নিজ নিজ দলের মেয়র প্রার্থীর পক্ষে নির্বাচনী প্রচারে অংশ নেন। সকাল থেকে সিটি করপোরেশন এলাকায় সাধারণ মানুষের মধ্যে লিফলেট বিতরণ ও পথসভায় ভোট চেয়ে বক্তব্য দেন।

দুপুরে জুমার নামাজ আদায় করতে বিএনপির জাতীয় স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন ও ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলুল হক মিলন এবং আওয়ামী লীগের ঢাকা বিভাগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল ও কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাকির হোসেন যান গাজীপুরের কেন্দ্রীয় জামে মসজিদে। সেখানে রাজনীতির মাঠে প্রতিদ্বন্দ্বী দুই দলের নেতারা নামাজ আদায় শেষে বেরিয়ে এসে আলাপ করেন। এ সময় স্থানীয় নেতারাও উপস্থিত ছিলেন। দুই দলের নেতাদের এক সঙ্গে দেখা নামাজ পড়তে আসা সাধারণ মানুষ ভিড় করেন।

দুই দলের নেতারা কুশল বিনিময় শেষে আবারও নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে যান। মসজিদের সামনে জড়ো মানুষের কাছে নিজ নিজ দলের মেয়র প্রার্থীর জন্য ভোট ও দোয়া চান।

গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীক নিয়ে লড়ছেন জাহাঙ্গীর আলম ও বিএনপির ধানের শীষ প্রতীক নিয়ে লড়ছেন হাসান উদ্দিন সরকার। আজ সাপ্তাহিক ছুটির দিনে স্থানীয় নেতা-কর্মী ও প্রার্থীদের পাশাপাশি দুই দলের কেন্দ্রীয় নেতারাও প্রচারে অংশ নেন।

খন্দকার মোশাররফ হোসেন বলেন, গাজীপুরে সুষ্ঠু নির্বাচন হওয়া নিয়ে তাদের মধ্যে সংশয় আছে। তারা প্রচারে নেমেছেন। ভালো সাড়া পাচ্ছেন। আজ আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গেও কথা হয়েছে। তারাও প্রচারে আছেন। মানুষ একটি সুষ্ঠু নির্বাচন দেখতে চায়। এটাই বড় কথা।

মহিবুল হাসান বলেন, গাজীপুরে সব দলের নেতারা প্রচারে আছেন। সেখানে ভালো পরিবেশ বিরাজ করছে। নির্বাচনও ভালো হবে।

আগামী ২৬ জুন ওই সিটি করপোরেশনে ভোট হবে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close