সারাদেশ

নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে চলছে অবৈধ ইট ভাটার নির্মাণ কাজ!

বার্তাবাহক ডেস্ক : নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইউপি চেয়ারম্যানের নেতৃত্বে কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের মেন্দিপুর এলাকায় অবৈধ ভাবে ইটভাটার নির্মাণ কাজ চলছে বলে অভিযোগ উঠেছে ‘ব্রিক ম্যানুফেকচারিং’ এর বিরুদ্ধে।

জানা যায়, জনবসতিপূর্ণ ও তিন ফসলি কৃষি জমিতে ইট ভাটা স্থাপন ও ইট তৈরির মাধ্যমে সংলগ্ন এলাকার ফলের বাগান, কৃষি জমি ও ফসল উৎপাদনে বিঘ্ন সৃষ্টি জণিত কার্যকলাপ বন্ধ এবং জনস্বাস্থ্য ও জনস্বার্থের পরিপন্থি ইট ভাটা স্থাপন কাজ করার লাইসেন্স প্রদান না করার জন্য গত ১২সেপ্টেম্বর মঙ্গলবার ২০১৭ জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করেন এলাকাবাসী।

ওই আবেদনের প্রেক্ষিতে প্রশাসনের অনুমতি পাওয়ার আগ পর্যন্ত ইটভাটা নির্মাণের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নিষেধাজ্ঞা প্রদান করেছে উপজেলা প্রশাসন।

কিন্তু নিষেধাজ্ঞা অমান্য করেই ইট ভাটার নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে মালিক পক্ষ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন এলাকাবাসী জানান, স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মাহবুবুর রহমান খান ফারুক মাস্টারের নেতৃত্বে প্রশাসনের নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে অবৈধ ভাবে ইট ভাটার নির্মাণ কাজ চালিয়ে যাচ্ছে ‘ব্রিক ম্যানুফেকচারিং’।

এ ব্যাপারে জামালপুর ইউপি চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. মাহবুবুর রহমান খান ফারুক মাস্টার জানান, কিছু শর্ত সাপেক্ষে তাদের ইট ভাটার ট্রেড লাইসেন্স দেওয়া হয়েছে। আবেদনের প্রেক্ষিতে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) এসে তদন্ত করে গেছেন। এবং আবেদন কারীরা আর ইট ভাটার মালিক পক্ষ মিমাংশা করেই কাজ করছে।

এ ছাড়াও ইট ভাটা মালিকদের বরাত দিয়ে তিনি আরো জানান, কালীগঞ্জের অধিকাংশ ইট ভাটা ছাড়পত্র ছাড়াই চলছে।

জেলা প্রশাসক বরাবর করা আবেদন সূত্রে জানাযায়, কালীগঞ্জ উপজেলার জামালপুর ইউনিয়নের মেন্দিপুর এলাকায় স্থানীয় অর্থ লোভী লোকজনের সহয়তায় ও মদদে কালীগঞ্জ এর বাসিন্দা মৃত সাহেব আলীর ছেলে ফারুক এবং তাদের পরিবারের মালিকানাধীন ব্রিক ম্যানুফেকচারিং ব্যবসায়িক প্রতিষ্ঠান ইটভাটা নির্মাণ কাজ চালাচ্ছে। যা ইট প্রস্তুত ও ভাটা স্থাপন (নিয়ন্ত্রণ) আইন, ২০১৩ (২০১৩ এর ৫৯ নং আইন) এর ধারা ৮ এর উপ-ধারা (১) আনুযায়ী জনবসতিপূর্ণ এলাকাতে শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও ফলের বাগান অধ্যুষিত এলাকায় ইট ভাটা স্থাপনের কোন সুযোগ নেই। এ সত্বেও কিছু অর্থলোভী দুষ্ট চক্রের প্রভোলনে নিরীহ কৃষকের জমিতে ইট ভাটা স্থাপনের যে অপচেষ্টা করা হচ্ছে তা বাস্তাবায়িত হলে এলাকার বৃহত্তর জনগোষ্ঠী দারুণভাবে ক্ষতিগ্রস্থ হবে বিধায় এলাকার সৃজিত বাগান এবং ফলজ গাছসহ পরিবেশের ধ্বংসাত্বক কাজের প্রতিবাদ জানিয়ে ইট ভাটা স্থাপন কাজ করার লাইসেন্স প্রদান না করার জন্য ৩৭ জন স্বাক্ষরিত জেলা প্রশাসক বরাবর আবেদন করেন এলাকাবাসী।

এ বিষয়ে কালীগঞ্জ উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. সোহাগ হোসেন জানান, প্রশাসনের অনুমতি পাওয়ার আগ পর্যন্ত ইটভাটা নির্মাণের সকল কার্যক্রম বন্ধ রাখার নিষেধাজ্ঞা প্রদান করে তদন্ত প্রতিবেদন পাঠানো হয়েছে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close