আলোচিতবিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

প্রধানমন্ত্রীর বার্তা পাঠানোর নির্দেশ মানবে না তিন কোম্পানি?

বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বার্তা : প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রশংসাসহ বেশ কিছু স্লোগান খুদেবার্তা (এসএমএস) আকারে জনগণের কাছে পাঠানোর জন্য মোবাইল ফোন অপারেটরদের নির্দেশ দিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)। তবে প্রধান তিনটি অপারেটর গ্রামীণফোন, রবি ও বাংলালিংক বিষয়টিকে ‘রাজনৈতিক’ ‍উল্লেখ করে ওই আদেশ মানবে না বলে কমিশনকে জানিয়েছে।

যেসব খুদেবার্তা পাঠানোর জন্য নির্দেশ দিয়েছিল বিটিআরসি, তার মধ্যে রয়েছে—‘জনগণের প্রাণের দোয়া, শেখ হাসিনার হাতের ছোঁয়া’, ‘বিশ্ববাসী অবাক মানে, শেখ হাসিনার অভিজ্ঞানে’।

২৯ সেপ্টেম্বর থেকে পরবর্তী ৯ দিন প্রতিদিন ওই সব ‘রাজনৈতিক’ খুদেবার্তার একটি করে সব গ্রাহকের কাছে পাঠাতে মোবাইল অপারেটরগুলোকে নির্দেশ দিয়েছিল বিটিআরসি। এর পরিপ্রেক্ষিতে বেসরকারি মোবাইল ফোন অপারেটর তিনটি তাদের সিদ্ধান্তের কথা একটি যৌথ চিঠির মাধ্যমে বিটিআরসিকে জানিয়েছে। অবশ্য বিটিআরসির নির্দেশনা মেনে নিয়েছে রাষ্ট্রীয় মোবাইল অপারেটর টেলিটক।

গত ২৯ সেপ্টেম্বর, শনিবার বিটিআরসির সরকারি পরিচালক তৌসিফ শাহরিয়ারের স্বাক্ষরিত একটি চিঠিতে অপারেটরগুলোকে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

৫ অক্টোবর, শুক্রবার দেশের ইংরেজি দৈনিক দ্য নিউএজে এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনও প্রকাশিত হয়েছে।

১ অক্টোবর, সোমবার বিটিআরসির কাছে যৌথভাবে চিঠি পাঠান গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মাইকেল ফোলি, রবির ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ও সিইও মাহতাব উদ্দিন আহমেদ এবং বাংলালিংকের এমডি ও সিইও এরিক অস।

চিঠিতে তারা জানান, মোবাইল অপারেটরগুলো জাতীয় জরুরি অবস্থায় বা জাতীয় নিরাপত্তা বিষয়ে সরকারের মেসেজ পাঠিয়ে থাকে। কিন্তু বিটিআরসি যেসব মেসেজ পাঠানোর নির্দেশ দিয়েছে, সেগুলো জাতীয় জরুরি অবস্থা বা জাতীয় নিরাপত্তাবিষয়ক নয়।

রাজনৈতিক মেসেজ পাঠানো থেকে নিজেদের বিরত রাখার কথা জানিয়ে তারা বলেন, এই জাতীয় কনটেন্ট মতানৈক্যের সৃষ্টি করে।

এ বিষয়ে জানতে সংশ্লিষ্ট দুটি অপারেটরের সঙ্গে যোগাযোগ করলে নাম প্রকাশ না করার শর্তে তারা বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন। তারা জানান, বিটিআরসির নির্দেশনার পরিপ্রেক্ষিতে তারা তাদের সিদ্ধান্ত জানিয়ে চিঠি দিয়েছেন। বিষয়টি ওই পর্যন্তই।

এ ব্যাপারে বিটিআরসি চেয়ারম্যান জহুরুল হকের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি টেলিকম অপারেটরদের কাছ থেকে চিঠি পাওয়ার বিষয়টি স্বীকার করেন। তবে তিনি এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।

এর আগে গত জুনে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রীর ৪৪ সেকেন্ডের শুভেচ্ছা বার্তাবিষয়ক ভয়েস মেইল পাঠাতে নির্দেশনা দিয়েছিল বিটিআরসি। সেই সময়ে শুধু টেলিটক ভয়েস মেইল পাঠাতে সক্ষম হয়েছিল। অন্য অপারেটরগুলো জানিয়েছিল, আট ঘণ্টার মধ্যে ১০ কোটি গ্রাহকের কাছে ভয়েস মেইল পাঠানো অসম্ভব।

 

সূত্র: প্রিয়.কম

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close