রাজনীতি

গফরগাঁওয়ে বিএনপির টিকেট চান অ্যাড.আল-ফাত্তাহ খান

বার্তাবাহক ডেস্ক : ময়মনসিংহের গফরগাঁও উপজেলার বুক চিরে বয়ে চলা ব্রক্ষপুত্র নদের এপর-ওপার নিয়ে সংসদীয় আসন ময়মনসিংহ-১০ (গফরগাঁও-পাগলা)।

দরজায় কড়া নাড়ছে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের।

বিভিন্ন দলের মনোনয়ন প্রত্যাশীরা নির্বাচনে প্রার্থী হতে জনমতের খাতায় নাম লেখাতে ভোটের মাঠে চষে বেড়াচ্ছেন। এই আসনে বিএনপির প্রার্থী হয়ে মাঠে লড়তে এরই মধ্যে ভোটারদের আস্থা অর্জন করেছেন অ্যাডভোকেট আল-ফাত্তাহ খান।

আল-ফাত্তাহ খান জাতীয়তাবাদী তৃণমূলদল কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক ও গফরগাঁও উপজেলার বিএনপির নেতা। বারবার দলের দুঃসময়ে বিএনপির কেন্দ্রীয় নানা কর্মসূচীতে সরব ভূমিকায় বেশ আলোচনায় এসেছে এ নেতা। এ ছাড়া গফরগাঁওয়ের নেতাকর্মীদের নামে বিভিন্ন সময়ে হওয়া মিথ্যা হয়রানি মূলক রাজনৈতিক মামলায় জড়ানো কর্মীদের অর্থ সহযোগিতায় তার নাম বেশ পরিচিত।

তিনি র্দীঘ দিন ধরে এলাকায় উঠান বৈঠকের মাধ্যমে সবার মধ্যে জনপ্রিয় মুখ হয়ে উঠেছেন। স্থানীয় দলীয় নেতাকর্মীদের সাথে কথা বলে জানা যায় তাকে মনোনয়ন দিলে এ আসনে বিএনপি বিজয় ছিনিয়ে আনতে পারবে বলে আমাদের বিশ্বস।

ময়মনসিংহ ১০- আসন গফরগাঁও-পাগলা নিয়ে গঠিত। গফরগাঁও উপজেলায়, রয়েছে ১৫টি ইউনিয়ন, একটি পৌরসভা ও দুটি থানা নিয়ে এ আসনের মোট ভোটার সংখ্যা ৩ লাখ ২৭ হাজার ৬৩৮জন।
মাঠপর্যায়ের একাধিক নেতাকর্মী জানিয়েছেন, এখানেও বিএনপির ভেতরে গ্রুপিং রয়েছে। তবে সবদিক বিবেচনা করে আল ফাত্তাহ খানের অবস্থান ভালো। কারন তিনি সহাবস্থানের রাজনীতি করতে পারবেন।

এ্যাডভোকেট আল ফাত্তাহ খান জানান, দীর্ঘদিন ধরে শহীদ জিয়ার আদর্শ নিয়ে বিএনপির রাজনীতি করছি। তৃণমূলকে সংগঠিত করতে কাজ করছি। সভা-সমাবেশ ও উঠান বৈঠক অব্যাহত রেখেছি। আমাকে এআসন থেকে ধানের শীষ দিলে আসনটি পুনরুদ্ধার করতে পারব ইনশা আল্লাহ। দেশনেত্রী বিবেচনা করবেন কাকে মনোনয়ন দিলে দলের জন্য ভালো হবে। এছাড়াও তারুন্যের অহংকার তারেক রহমানের আধুনিক বাংলাদেশ গঠনে তিনি কাজ করবেন। কিন্তু বর্তমানে একমাত্র লক্ষ্যই হচ্ছে বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করে আনা।

এছাড়াও তিনি নির্বাচিত হতে পারলে গফরগাঁওয়ের অবহেলিত মানুষের ভাগ্যউন্নয়নে ও এলাকার আওয়ামীলীগের ক্যাডার রাজনীতির অবসান করবেন।

তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৯৪ সালে আইনের উপর উচ্চ শিক্ষা গ্রহণ করে আইনী পেশায় যোগ দেন। ১৯৮৮ সালে ঢাকা সিটির ৭৪নং ওয়ার্ড ছাত্রদলের যুগ্ন সম্পাদক হিসেবে রাজনীতিতে নাম লেখান, এর পর শেখ বোরহান উদ্দিন কলেজ শাখা ছাত্রদলের এজিএস, ১৯৯৮ সালে পাঁচভাগ ইউনিয়ন বিএনপির সদস্য পদও লাভ করেন। পরে ২০০২ সালে গফরগাঁও উপজেলা বিএনপির সদস্য হন। ২০১৩ সালে পাগলা থানা বিএনপির সহসভাপতি নির্বাচিত হন তিনি। এছাড়াও বর্তমানে জাতীয়তাবাদী তৃনমূল দলের কেন্দ্রিয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক পদে কর্মরত থেকে বেগম খালেদা জিয়ার কারামুত্তি এবং হারানো গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় ও ভোটের অধিকার আন্দোলনে ঢাকার রাজপথসহ নিজ এলাকায় কর্মসূচী পালন করছেন। ১৯৭২সালে গফরগাঁও উপজেলার পাগলা থানাধীন চরশাঁখচূড়া গ্রামে প্রখ্যাত আইনজীবি আব্দুল মান্নান খানের ঘরে জন্মগ্রহণ করেন এই নেতা।

আওয়ামীলীগের ঘাটি হিসেবে পরিচিত এই আসন থেকে মাত্র একবার নির্বাচিত হয়েছিলেন বিএনপি দলীয় প্রার্থী প্রয়াত ফজলুর রহমান সুলতান।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close