আলোচিত

পারটেক্স চেয়ারম্যান হাসেমকে দুদকে ছয় ঘণ্টা জিজ্ঞাসাবাদ

বার্তাবাহক ডেস্ক : অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ অনুসন্ধানের অংশ হিসেবে পারটেক্স গ্রুপের চেয়ারম্যান এম এ হাসেমকে ছয় ঘন্টা জিজ্ঞাসাবাদ করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)। তবে জিজ্ঞাসাবাদ শেষে সাংবাদিকদের কাছে কোন কথা বলেননি হাসেম।

দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রণব কুমার ভট্টাচার্য জানান, রবিবার সকাল সাড়ে ১০ টা থেকে বিকেল সাড়ে চারটা পর্যন্ত এই জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সংস্থার উপ-পরিচালক ও অনুসন্ধান কর্মকর্তা মোশারফ হোসেইন মৃধা হাসেমকে জিজ্ঞাসাবাদ করেন।

গত ১৯ সেপ্টেম্বর এক নোটিশে ২৬ সেপ্টেম্বর হাসেমকে তলব করে দুদক। অসুস্থতার কারণ দেখিয়ে ওই দিন তিনি হাজির না হয়ে এক মাসের সময় চেয়ে আবেদন করেন। এরপর তাকে ২১ অক্টোবর তলব করে আবারও নোটিশ পাঠানো হয়।

পারটেক্স চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ‘রাজস্ব ফাঁকি, বৈধ ব্যবসার আড়ালে অবৈধ ব্যবসা পরিচালনা ও সরকারের বিপুল পরিমাণ সম্পত্তি দখলসহ দুর্নীতির মাধ্যমে শত কোটি টাকার মালিক হওয়ার’ অভিযোগ রয়েছে দুদকের কাছে।

এছাড়া পারটেক্স গ্রুপের বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের নামে স্বল্প মূল্যে পণ্য আমদানি করে নথিতে বেশি দাম দেখিয়ে তিনি শত শত কোটি টাকা বিদেশ পাচার করেছেন বলেও অভিযোগ রয়েছে।

এম এ হাসেম ও তার দুই ছেলেকে এর আগে চিনি আমদানিতে দুর্নীতির একটি অভিযোগে ২০১৪ সালের সেপ্টেম্বরে জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল দুদক।

জিজ্ঞাসাবাদ শেষে অপেক্ষমান সাংবাদিকদের এড়িয়ে যাওয়ার চেষ্টা করেন এম এ হাসেম। দুদকের পেছন গেট দিয়ে চলে যাওয়ার চেষ্টা করলে সংস্থার কর্মীদের অনুরোধে মূল গেট দিয়ে বের হন। তবে সাংবাদিকদের কাছে কোন কথা বলেননি তিনি।

হাসেম নোয়াখালীর একটি আসন থেকে বিএনপির সংসদ সদস্য ছিলেন। তবে তিনি দলটি থেকে পদত্যাগ করে রাজনীতি করবেন না বলে জানিয়েছেন।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close