জাতীয়

দক্ষিণাঞ্চলে ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা: প্রধানমন্ত্রী

বার্তাবাহক ডেস্ক : দক্ষিণাঞ্চলে ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের পরিকল্পনা রয়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, অবহেলিত এ অঞ্চলকে ঘিরে সরকারের মহাপরিকল্পনা রয়েছে। এ অঞ্চলের মানুষ সুন্দরভাবে বাঁচবে।

শনিবার বেলা ১টার দিকে পটুয়াখালী পায়রা তাপ বিদ্যুৎ কেন্দ্র পুনর্বাসন প্রকল্পসহ ২১টি প্রকল্প উদ্বোধনকালে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

শেখ হাসিনা বলেন, এ অঞ্চলে বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনের ফলে শুধু মানুষের ঘরে ঘরেই বিদ্যুৎ যাবে না, কারখানাও গড়ে উঠবে, কৃষির যান্ত্রিকীকরণ করবো।

তিনি বলেন, এ এলাকার মানুষ আর কষ্ট পাবে না। জীবনমান উন্নত হবে। এখানে যাতে ৩০ হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা যায়, সে ব্যবস্থাই করছি। এই এলাকায় এনএলজি টার্মিনাল করবো।

এসব উন্নয়ন করতে যেয়ে মানুষ যাতে গৃহহীন হয়ে না যায়, সেদিকে খেয়াল রাখা হচ্ছে বলেও জানান তিনি।

‘যেসব জমি অধিগ্রহণ করা হয়েছে, সেসব জমি প্রায় তিনগুণ বেশি দামে নিয়েছি। এই জমি নেয়ার কারণে ১৩০ পরিবারকে ঘর তৈরি করে দিয়েছি, যাতে তারা পরিবার নিয়ে ভালোভাবে থাকতে পারে। তাদের সন্তানদের লেখাপড়া করাতে পারে। তাদের জন্য মসজিদ-স্কুলসহ সব ধরনের ব্যবস্থা করেছি। আশা করছি তারা সেখানে সুন্দরভাবে বসবাস করতে পারবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ৯৬ থেকে ২০০১ সাল পর্যন্ত আমরা বাংলাদেশকে খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ করেছিলাম। গৃহহারা মানুষের ঘরবাড়ি তৈরি থেকে শুরু করে তাদের বাসস্থান, স্বাস্থ্যসেবা, শিক্ষার ব্যবস্থা এবং বিদ্যুৎ উৎপাদনের ব্যবস্থাও করেছিলাম।

‘এরপর আর ক্ষমতায় আসতে পারলাম না। ২০০৮ সালে জনগণ নৌকা মার্কায় ভোট দিল, আমরা সরকার গঠন করলাম। ২০১৪ তে আবার জনগণ নৌকা মার্কায় ভোট দিয়েছে, আমরা সরকার গঠন করেছি।’

সারা দেশেই উন্নয়নের ছোঁয়া লেগেছে উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ২০০৮ এ নির্বাচনে জয়ী হয়ে ২০০৯ এ সরকার গঠন করি। সেই ২০০৯ থেকে ২০১৮ প্রায় ১০ বছরে সারা দেশে উন্নয়নের ছোঁয়া পড়েছে।

দেশের সব ব্রিজ আওয়ামী লীগের আমলেই করা হয়েছে বলে জানান শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, প্রত্যেকটা এলাকায় সাধারণ মানুষ যাতে ভালোভাবে থাকতে পারে তার ব্যবস্থা করতে আমরা সক্ষম হয়েছি। আমরা বিদ্যুৎ উৎপাদনে ২০ হাজার মেগাওয়াটে বৃদ্ধি করেছি।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এটাও পড়ুন

Close
Close