আলোচিত

নির্বাচনের আগে-পরে বন্ধ থাকবে রাইড শেয়ারিং!

বার্তাবাহক ডেস্ক : নির্বাচনের ঠিক আগে এবং পরে দেশে রাইড শেয়ারিং সার্ভিসগুলো পুরোপুরি বন্ধ থাকবে। আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ ও নির্বাচনী পরিবেশের স্বার্থে এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হতে পারে। একই সময় মোবাইল নেটওয়ার্কও বন্ধ রাখার ইঙ্গিত দিয়েছে নির্বাচন কমিশন।

আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর উচ্চ পর্যায়ের একটি সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

অতীতে দেশে যত নির্বাচন হয়েছে তখন এ ধরণের সেবাগুলো চালু ছিলও না। আর রাইড শেয়ারিং সার্ভিসগুলো ব্যবহার করে দ্রুত চলাচল করে নাশকতার আশংকাও থাকে। রাইড শেয়ারিং সার্ভিস চালুর পর গত ফেব্রুয়ারি মাসে একবার এ ধরণের সার্ভিস বন্ধ রাখে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী। তবে ২৪ ঘণ্টা পরই আবার তা সচল করে দেওয়া হয়। এছাড়া এ পর্যন্ত এ ধরনের সেবা বন্ধ করা হয়নি। প্রায় তিন বছর ধরে ঢাকার যাতায়াতে উবার, পাঠাও, সহজ, ওভাই- কোম্পানির রাইড শেয়ারিং ব্যবহৃত হচ্ছে।

এ বছরের ০৮ ফেব্রুয়ারি খালেদা জিয়ার ‘জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট’ মামলার রায় ঘোষণার দিন প্রথমবারের মত আইনশৃঙ্খলা বাহিনী এ ধরণের সেবা বন্ধ করে। একই ভাবে নির্বাচনের আগে ও পরে এসব সেবা বন্ধ করার একটা পরিকল্পনা রয়েছে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর।

নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন আহমদ জানিয়েছেন, আইন শৃঙ্খলার চরম অবনতি হতে পারে এমন পরিস্থিতিতে তারা মোবাইল নেটওয়ার্কও প্রয়োজনে বন্ধ রাখতে পারেন।

নির্বাচন কমিশন বলছে, নির্বাচন কেন্দ্রিক গুজব ও অপপ্রচার ঠেকাতে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমগুলোর উপরে সার্বক্ষণিক নজরদারি করা হবে।

এজন্যে টেলিকম নিয়ন্ত্রক সংস্থা থেকে শুরু করে ইন্টারনেট সেবা দানকারী প্রতিষ্ঠান, মোবাইল ফোন কোম্পানি ও পুলিশের সহযোগিতা চাওয়া হয়েছে।

দেশের রাইড শেয়ারিং সেবাগুলো মোবাইল ফোনের নেটওয়ার্ক নির্ভর। নেটওয়ার্ক বন্ধ থাকলে সেবাগুলো কেউ স্মার্টফোনে ব্যবহারের সুযোগ পাবেন না।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close