আলোচিতসারাদেশ

কালীগঞ্জে নিয়মিত চলছে ডাকাতি, মামলা হলো দস্যূতার?

বার্তাবাহক ডেস্ক : গাজীপুরের কালীগঞ্জে নিয়মিত চলছে ডাকাতির উৎসব। গত ১৪ নভেম্বর মঙ্গলবার থেকে ০৬ ডিসেম্বর বুধবার পর্যন্ত মোট ২৩ দিনে একটি ছিনতাইয়ের ঘটনাসহ তিন বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে ডাকাতদের হামলায় আহত দুজনকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।

কিন্তু এসব ঘটনায় মাত্র একটি মামলা দায়ের হয়েছে। রহস্যজনক কারণে তাও আবার দস্যূতার!

(৬ ডিসেম্বর) বুধবার দিবাগত রাতে কালীগঞ্জ উপজেলার উলুখোলায় দুই বাড়িতে ডাকাতির ঘটনা ঘটেছে। ডাকাতরা স্বর্ণালঙ্কার, নগদ টাকাসহ বেশ কিছু দামি জিনিসপত্র লুট করে নিয়ে গেছে। এ ঘটনায় ডাকাতদের চাপাতির আঘাতে গুরুত্বর আহত মতিউর রহমান(৩৩) নামে এক ব্যবসায়িকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে (ঢামেক) ভর্তি করা হয়েছে।

কালীগঞ্জের উলুখোলা রায়েরদিয়া এলাকার আতিকুল্লাহ সরকার জানান, বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ৩/৪ জনের মুখোশপড়া একটি সশস্ত্র ডাকাত দল বাড়ির কলাপসিপল গেইটের তালা কেটে ঘরের দরজা ভেঙ্গে ভিতরে প্রবেশ করে। এ সময় তার নাতি ইস্কান্দার সরকার (৫) ও ১ মাসের নাতনি ইভার গলায় ছুড়ি ঠেকিয়ে নগদ টাকা, স্বর্ণালঙ্কার, ৩টি মোবাইল ফোন, ১টি ডিজিটাল ক্যামেরা লুট করে নিয়ে গেছে। এ সময় বাধা দেওয়ায় ডাকাত দল তার ছেলে মতিউর রহমানকে চাইনিজ কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে মারাত্মকভাবে জখম করে। পরে তাকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ ঘটনায় তিনি মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলেও জানান।

অন্যদিকে একই উপজেলার নগরভেলা গায়েনধারী এলাকায় ব্যবসায়ি আসাদ জানান, মঙ্গলবার গভীর রাতে তার ছোট ভাই জায়েদুল ইসলামে বাড়ির গ্রীল গেইট ও রুমের দরজা ভেঙে তিনজন ডাকাত ঘরে প্রবেশ করে। ডাকাতরা ঘরের সবাইকে বেঁধে রেখে সাড়ে ৭ ভরি স্বর্ণালঙ্কার ও নগত প্রায় এক লাখ টাকা লুটে নিয়ে যায়। এসময় ডাকাতরা বাড়ির ভাড়াটিয়াদেরকেও মাধরধর করে।

কালীগঞ্জ থানায় কর্তব্যরত ডিউটি অফিসার সহকারী উপপরিদর্শক(এএসআই) রফিকুল ইসলাম জানান, বৃহস্পতিবার রাতে উপজেলার নগরভেলা গায়েনধারী এলাকার জায়েদুল ইসলাম বাদী হয়ে দস্যূতার অভিযোগে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

কালীগঞ্জ থানা অফিসার ইনচার্জ মো. আবুবকর মিয়া ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ঘটনার পর ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছি। মামলা দায়ের হয়েছে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

এদিকে গত মঙ্গলবার(৪ডিসেম্বর) মধ্যে রাতে টঙ্গী-ঘোড়াশাল সড়কের কালীগঞ্জ উপজেলার দড়িপাড়া এলাকায় প্রাইভেটকারচালক ছিনতাইকারী চক্রের কবলে পড়ে মালামাল খুইয়েছেন সৌদি আরবের রিয়াদ থেকে ছুটিতে আসা উজ্জ্বল(২৫) নামে এক যুবক।

ছিনতাইকারী চক্রের সদস্যরা উজ্জ্বলের সঙ্গে থাকা ৫০০ সৌদি রিয়াল ও ১০ হাজার টাকা ও একটি স্বর্ণের আংটি ছিনিয়ে নেয়।

কালীগঞ্জ থানায় উপ-পরিদর্শক এসআই সুলতান উদ্দিন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে ছিনতাইকারী চক্রের প্রাইভেটকার (ঢাকা মেট্রো প-১১-৩১৪১)জব্দ করা হয়েছে। ছিনতাইকারীদের আটক করতে অভিযান চলছে। এ বিষয়ে আইনানুক ব্যবস্থা প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলেও তখন জানান তিনি।

এর আগে, (১৪ নভেম্বর) মঙ্গলবার ভোরে রাতে কালীগঞ্জ পৌর এলাকার ভাদার্ত্তী গ্রামের হোটেল ব্যবসায়ী রমজানের বাড়িতে মুখোশ পরা ১০/১২ জনের একটি ডাকাত দল ঘরে প্রবেশ করে। এ সময় ডাকাতরা ওই বাড়ির অন্যান্য ঘরের দরজা বাইরে থেকে আটকে দেয়। পরে তারা অস্ত্রের মুখে ঘরের লোকজনকে জিম্মি করে মালামাল লুট করার চেষ্টা করলে রমজান ও তার স্ত্রী বাধা দেয়। এ সময় ডাকাতরা রমজান ও তার স্ত্রী রোজিনা আক্তারকে মারধর করতে থাকে। বাড়ির লোকজনের চিৎকারে প্রতিবেশীরা জেগে উঠে মাইকে ঘোষণা দিয়ে এগিয়ে আসতে থাকে। এক পর্যায়ে ডাকাতদল ধারালো অস্ত্র দিয়ে রমজানের হাতে ও বুকে আঘাত করে পালিয়ে যায়। স্থানীয়রা আহত রমজানকে উদ্ধার করে প্রথমে কালীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। কিন্তু তার অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় পরে সেখান থেকে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়।

কালীগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) মোখলেছুর রহমান আহত রমজান আলীর স্ত্রীর বরাদ দিয়ে ওই সময় জানান, চারজন ডাকাত ঘরে প্রবেশ করলে তাদের ডাক চিৎকারে আশেপাশের লোকজন আসলে ডাকাতরা পালিয়ে যায়। ঘটনার পর খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বলেও জানান তিনি।

এছাড়াও গত ১০ জুলাই মঙ্গলবার একই উপজেলার রায়েরদিয়া গ্রামের একটি বাঁশ ঝাড়ের পাশ থেকে মামুন ইসলাম খান (৩৮) নামে এক পুলিশ কর্মকর্তার আগুনে পোড়া বস্তাবন্ধি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ।

নিহত মামুন ইসলাম খান ঢাকার রাজারাবাগ পুলিশ লাইনে বিশেষ শাখার (এসবি) পরিদর্শক ছিলেন।

এ সংক্রান্ত আরও পড়ুন:

কালীগঞ্জে ছিনতাইকারী চক্রের কবলে সৌদিফেরত যুবক

কালীগঞ্জে ডাকাত আতঙ্কে নির্ঘুম গ্রামবাসী, ডাকাতের হামলায় ব্যবসায়ি আহত

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close