অর্থনীতি

অর্থপাচার: ১০ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানকে সিআইডির তলব

বার্তাবাহক ডেস্ক : ডিজিটাল এই যুগে বিশ্বের সব প্রতিষ্ঠান কম-বেশি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ব্যবহার করে ব্যবসা পরিচালনা করে। বসে নেই বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠানগুলোও। দেশের অনেক ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অনলাইনভিত্তিক হয়ে দাঁড়িয়েছে। আর সেজন্য তারা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোতে প্রচুর পরিমাণ অর্থ ব্যয় করছে।

ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানগুলো ফেসবুক মার্কেটিংয়ে বিপুল অর্থ খরচ করে থাকে তাদের ব্যবসায়িক প্রচারের জন্য।

এই অনলাইন মার্কেটিং যে পরিমাণ অর্থ ব্যয় করা হচ্ছে তার ওপর সরকার এখনও কোন ধরনের ভ্যাট বসাতে পারিনি। তবে সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন সংক্রান্ত মানি লন্ডারিংয়ের (অর্থপাচার) বিষয়টি খতিয়ে দেখছে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ- সিআইডির একটি ইউনিট। তারা ২৭ ফেব্রুয়ারি, বুধবার দেশের শীর্ষস্থানীয় ১০টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানকে সিআইডি কার্যালয়ে ডেকে পাঠায়।

প্রতিষ্ঠানগুলো হলো- আজকের ডিল, বিক্রয় ডটকম, চালডাল ডটকম, খাস ফুড, দারাজ ডট কম, ফুডপান্ডা, অথবা ডটকম, পিকাবু ডটকম, রকমারি ও সেবা ডট এক্সওয়াইজেট।

এই বিষয়ে পিকাবু ডটকমের চিফ প্রোডাক্ট অফিসার মরিন তালুকদার বলেন, ‘সিআইডি অর্গানাইজড ক্রাইমের মানি লন্ডারিং ইউনিট আজ আমাদের ১০টি ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের সাথে বসেছে। আলাদাভাবে কাউকে ডাকেনি, একসাথেই সবাকে নিয়ে বসেছে। সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজ্ঞাপন কোন কোন মাধ্যম ব্যবহার করে দেয়া হচ্ছে -এই সকল বিষয়ে জানতেই আমাদের ডাকা হয়ছে।’

তিনি আরো বলেন, ‘আমাদের দেশে অনেক বাইরের দেশের ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আছে, তারা এখানে ব্যবসা পরিচালনা করলেও তাদের মূল প্রতিষ্ঠান বাইরে তারাও সোশ্যাল মিডিয়াতে বিজ্ঞাপন কোন মাধ্যম ব্যবহারে দিচ্ছে সেগুলো জানার জন্যই ডাকা।’

এ বিষয়ে বিক্রয় ডটকমের হেড অব মার্কেটিং এন্ড অ্যাড সেলস ঈশিতা শারমিন বলেন, ‘এই বিষয়টাকে অন্যভাবে নেয়ার কিছু নেই। সরকার এই ব্যাপারটাকে ভালোভাবে নিয়েছে বলেই আমাদের সাথে বসেছে। উনারা সোশ্যাল মিডিয়ায় বিজ্ঞাপন দেয়ার বিষয়ে জানতে চেয়েছে। এই বিষয়ে পরিবর্তিতে আমাদের অফিসিয়াল কাগজ-পত্র নিয়ে বসবে।’

এদিকে সিআইডি জানিয়েছে, একই ধরনের ব্যবসায়িক কার্যক্রমের সাথে জড়িত অন্যদেরও তথ্য প্রদানের জন্য আগামীতে ডাকা হবে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close