খেলাধুলা

সাকিব বনাম আফগানিস্তান ম্যাচে বাংলাদেশের জয়!

খেলাধুলার বার্তা : এটি আরেকটি ম্যাচ যে ম্যাচকে আপনি নতুন নামে ডাকতে পারেন-‘সাকিবের ম্যাচ’!

চলতি বিশ্বকাপে সাকিব আল হাসান ব্যাট হাতে বিশ্বকে বিস্মিত করছিলেন। আফগান ম্যাচে আরেকবার বুঝিয়ে দিলেন কেন তাকে বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার বলা হয়? ব্যাটিংয়ে দুরন্ত! বোলিংয়ে দুর্দান্ত!! আফগানিস্তানকে ৬২ রানে হারানো ম্যাচের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত শুধু সাকিব আর সাকিব!

ব্যাট হাতে ৫১ রান। বোলিংয়ে ১০ ওভারে ২৯ রানে ৫ উইকেট! বিশ্বকাপের মাঠে প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে পাঁচ উইকেট লাভের কৃতিত্ব তার। চলতি বিশ্বকাপে সবচেয়ে বেশি ৪৭৬ রানের মালিক তিনি। উইকেট শিকার ১০টি। শুধু কি তাই? এবারের বিশ্বকাপেরও এক ম্যাচে কোনো বোলারের সেরা বোলিং এটি। পাকিস্তানের মোহাম্মদ আমিরের ৫/৩০ বোলিংকে টপকে গেলেন সাকিব।

আরো আছে!

বিশ্বকাপের কোনো ম্যাচে হাফসেঞ্চুরির সঙ্গে পাঁচ উইকেট শিকারি দ্বিতীয় ক্রিকেটার সাকিব আল হাসান। তার আগে এই রেকর্ডটা ছিলো ভারতের যুবরাজ সিংহের। ২০১১ সালের বিশ্বকাপে আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে এই অলরাউন্ডার পারফরমেন্স দেখিয়েছিলেন যুবরাজ।

এমন দুর্দান্ত ফর্মের ক্রিকেট শুধু স্বপ্নেই দেখেন ক্রিকেটাররা। সাকিব সেটাকে বাস্তবের জমিনে নামিয়ে এনেছেন।

তাও আবার কোথায়?

-একেবারে বিশ্বকাপের আসরে!

সাউদাম্পটনে বাংলাদেশের তোলা ২৬২ রানের জবাবে আফগানিস্তানের ব্যাটিংয়ের শুরুটা যেভাবে হয়েছিলো তাতে মনে হচ্ছিলো বড় সমস্যার মধ্যে পড়তে যাচ্ছে মাশরাফির দল। পড়েছিলোও বটে! প্রথম পাওয়ার প্লে’তে চলতি বিশ্বকাপে এই প্রথম কোনো উইকেট হারালো না আফগানিস্তান। তুললো নিজেদের সেরা সংগ্রহ ৪৮ রান। ধীরে ধীরে ম্যাচে অস্বস্তি ঘিরে ধরে বাংলাদেশকে।

১১ নম্বর ওভারে সাকিবের হাতে বল তুলে দিলেন মাশরাফি।

সাকিব স্বস্তি এনে দিলেন। আফগান ওপেনার রহমত শাহ আউট। দুই স্পেলে নিজের শুরুর পাঁচ ওভারেই ম্যাচের মোড় বদলে দিলেন সাকিব। শিকার করলেন ৩ উইকেট। এই সময় তার দাড়ায় বোলিং বিশ্লেষণ ৫-১-৬-৩! পরের তিন ওভারে আরেকটি উইকেট নিয়ে বিশ্বকাপে নিজের সেরা বোলিং পারফরমেন্স দেখালেন। ছাড়িয়ে গেলেন চার বছর আগের বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে (৪/৫৫) নিজের সেরা বোলিংকে।

ইনিংসের মাঝপথে সেই যে মুখ থুবড়ে পড়লো আফগানিস্তান, সেখান থেকে আর উঠে দাড়াতে পারলো না। শেষ ১৫ ওভারে ম্যাচ জয়ের জন্য আফগানদের প্রয়োজন দাড়ায় ১৩১ রান। হাতে ৫ উইকেট জমা। কিন্তু সাউদাম্পটনের এই পিচে শেষ পাঁচ উইকেটে সেটা যে তখন আফগানদের জন্য খালি পায়ে বরফের পাহাড়ে উঠার মতোই কঠিন।

এই ম্যাচে আফগানিস্তানের সেই কষ্ট শেষ হয় ৪৭ নম্বর ওভারে এসে। ঠিক ২০০ রানে।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close