আলোচিত

দুর্নীতিমুক্ত ও চৌকস বাহিনী গড়তে আবারও পুলিশে বড় রদবদল আসছে

বার্তাবাহক ডেস্ক : দুর্নীতিমুক্ত ও চৌকস বাহিনী গড়তে আবারও বড় ধরনের রদবদল হচ্ছে পুলিশে। উপমহাপরিদর্শক (ডিআইজি), পুলিশ সুপার, অ্যাডিশনাল পুলিশ সুপার, দুটি মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার ও একাধিক থানার ওসির পদে আসছে বদল। আগামী মাসেই এই রদবদল করা হচ্ছে বলে পুলিশ সদর দপ্তর সূত্র জানিয়েছে। এর মধ্যে বদলির একটি তালিকা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় হয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে গিয়েছে।

পুলিশ সদর দপ্তরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা বলেন, সরকারি চাকরিতে বদলি বা পদোন্নতি একটি স্বাভাবিক ও নিয়মিত প্রক্রিয়া। বাংলাদেশ পুলিশের কোনো কর্মকর্তা বা সদস্যের বদলি বা পদোন্নতিও সরকারি চাকরির স্বাভাবিক, নিয়মিত ও চলমান প্রক্রিয়ারই অংশ।

পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, পুলিশের যেকোনো দুর্নীতি প্রতিরোধ করতে আমরা নানাভাবে চেষ্টা চালাচ্ছি। প্রধানমন্ত্রীও চাচ্ছেন দুর্নীতি জিরো টলারেন্সে নিয়ে আসতে। বিভিন্ন সময় দেখা গেছে, অনেক পুলিশ কর্মকর্তা দীর্ঘদিন ধরেই এক জায়গায় বছরের পর বছর ধরে আছেন। রাজনৈতিকসহ নানা কারণে তাদের সরানো যাচ্ছে না। যার ফলে তারা দুর্নীতিসহ নানা অপরাধে জড়িয়ে পড়ছেন। এসব কারণে সরকারের উচ্চপর্যায়ের নির্দেশে পুলিশকে আরও ঢেলে সাজানো হচ্ছে। এরই অংশ হিসেবে সামনে আরও বড় ধরনের রদবদল আসছে। ৬৪ জেলার পুলিশ সুপার, রেঞ্জ ডিআইজি, মেট্রোর পুলিশ কমিশনার ও থানার ওসিদের বদলি করা হবে।

ওই কর্মকর্তা আরও বলেন, যেসব প্রভাবশালী পুলিশ সুপারের বিরুদ্ধে অনিয়ম-দুর্নীতির অভিযোগ রয়েছে, তাদের সরানো হচ্ছে। সাধারণত পুলিশ সুপার থেকে ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের মধ্যে কাকে কোথায় বদলি বা পদায়ন করা হচ্ছে, তা তিনি আগে থেকে জানতেন। কিন্তু এখন কেউ জানতে পারছেন না। আইজিপিসহ ঊর্ধ্বতনরা চাচ্ছেন, সৎ পুলিশ কর্মকর্তারা ভালো স্থানে থেকে জনগণের সেবা করুক এবং জনবান্ধব পুলিশ গড়ে উঠুক। পুলিশের বিরুদ্ধে যে বদনাম আছে তা শেষ হয়ে যাক।

পুলিশ কর্মকর্তারা বলছেন, বর্তমান সরকারের আমলে পুলিশে আমূল পরিবর্তন আনা হয়েছে। হাজারো সমস্যা জর্জরিত পুলিশ বাহিনীকে বদলে ফেলার কাজ শুরু হয়েছে। আবাসন, যাতায়াত সমস্যা সমাধানের পাশাপাশি সব ধরনের লজিস্টিক সাপোর্ট বৃদ্ধি করা হয়েছে। ওই সময় পুলিশের জনবল বাড়ানোর কাজও শুরু হয়েছে। গত ২২ জুন থেকে সারা দেশের ৬৪ জেলায় ৯ হাজার ৬৮০ পুলিশ কনস্টেবল নিয়োগ কার্যক্রম শুরু হয়েছে।

সূত্র জানিয়েছে, কনস্টেবল নিয়োগের পর সারা দেশে পুলিশে বড় ধরনের রদবদল করার একটি প্রস্তাবনা তৈরি করা হয়েছে। ওই প্রস্তাবনায় অন্তত ১৫ পুলিশ সুপার মর্যাদার কর্মকর্তা, দুজন ডিআইজি, দুজন অতিরিক্ত আইজিপি, শতাধিক অ্যাডিশনাল পুলিশ সুপার, দুটি মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার, অন্তত দুই শতাধিক থানার ওসি ও ইন্সপেক্টর রয়েছেন। প্রধানমন্ত্রীর সম্মতি মিললেই রদবদল প্রক্রিয়া শুরু হবে।

এদিকে আগামী ১৩ আগস্ট ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া অবসরে যাচ্ছেন। এই পদে আসতে বেশ কয়েক পুলিশ কর্মকর্তা নানাভাবে তদবির করছেন।

এ বিষয়ে নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক কর্মকর্তা বলেন, ডিএমপি কমিশনারের পদ পেতে অনেকে চেষ্টা করছেন। তবে সদর দপ্তরের অতিরিক্ত আইজিপি (এইচআরএম) চৌধুরী আবদুল্লাহ আল মামুন এবং পুলিশ স্টাফ কলেজের রেক্টর ও অতিরিক্ত আইজিপি শেখ মারুফ হাসান এগিয়ে আছেন। তাদের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও আইজিপির সম্মতি আছে।

 

সূত্র: দেশ রূপান্তর

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close