আইন-আদালত

মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোর সিন্ডিকেট: তদন্ত ৩ মাসে শেষ করার নির্দেশ

বার্তাবাহক ডেস্ক : মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো ও নিয়ন্ত্রণকারী ১০ রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে গঠিত কমিটিকে তিন মাসের মধ্যে কাজ শেষ করতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। আগামী ১৪ নভেম্বরের মধ্যে তদন্ত শেষ করতে বলেছেন কমিটিকে। এর মধ্যে তদন্ত শেষ করে প্রতিবেদন দাখিল না করলে আদালত অবমাননায় ব্যবস্থা নেওয়া হবে তাদের বিরুদ্ধে।

বুধবার (২১ আগস্ট) বিচারপতি মইনুল ইসলাম চৌধুরী ও বিচারপতি মো. আশরাফুল কামাল সমন্বয়ে গঠিত হাইকোর্টের দ্বৈত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার রাশনা ইমাম। দুদকের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী মো. খুরশীদ আলম খান। প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের পক্ষে ছিলেন আইনজীবী শেখ জালাল উদ্দিন।

আদেশের পর আইনজীবী রাশনা ইমাম বলেন, ‘সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে ছয় মাস সময় দিয়েছিলেন হাইকোর্ট। কিন্তু ১০ মাসেও তদন্ত শেষ হয়নি। এতদিনেও প্রতিবেদন না দেওয়ায় কোর্ট অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তদন্তের গতি নিয়ে। আমরা কমিটিকে কার্যপরিধি ঠিক করে দিতে আদালতে আবেদন করি। আদালত আমাদের আবেদন মঞ্জুর করে পাঁচটি কার্যপরিধি নির্ধারণ করে দিয়েছেন।’

গত ২৬ জুন মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানোয় জড়িত ১০ রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেট ও তাদের অনিয়ম তদন্ত করে ১৮ জুলাইয়ের মধ্যে প্রতিবেদন দাখিল করতে নির্দেশ দেন হাইকোর্ট। এ নির্দেশের পর প্রতিবেদন দাখিল না করে সময় চায় কমিটি। গত ফেব্রুয়ারিতে সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে হাইকোর্টের নির্দেশে কমিটি গঠন করে প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়। কমিটির আহ্বায়ক প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের একজন অতিরিক্ত সচিব।

২০১৮ সালের ২৯ অক্টোবর মালয়েশিয়ায় শ্রমিক পাঠানো নিয়ন্ত্রণকারী ১০টি রিক্রুটিং এজেন্সির সিন্ডিকেটের অনিয়ম তদন্তে কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন আদালত।

মালয়েশিয়া ও বাংলাদেশের মধ্যে সম্পাদিত চুক্তি উপেক্ষা করে ১০ এজেন্সির মাধ্যমে লোক নেওয়ার ঘটনার বৈধতা চ্যালেঞ্জ করে বঞ্চিত অপর ১০টি এজেন্সি হাইকোর্টে রিট করেন। ওই রিটের শুনানি নিয়ে আদালত এ আদেশ দেন।

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close