আলোচিত

‘ক্যাসিনো’ নেপালিদের পালাতে সহায়তাকারী ৩ জনই গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য!

বার্তাবাহক ডেস্ক : ক্যাসিনো পরিচালনার সঙ্গে জড়িত ১৯ নেপালিকে পালাতে সহায়তাকারীরা পুলিশের সদস্য নন বলে জানিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

সহায়তাকারী ওই তিনজনই অন্য একটি গোয়েন্দা সংস্থার সদস্য।

সিসি ক্যামেরা ফুটেজে যাদের দেখা গেছে, তাদের মধ্যে ওয়াকিটকি হাতে শার্ট ইন করা ব্যক্তিটি ওই সংস্থার সহকারী প্রোগ্রামার। তার নাম মো. আক্তার হোসেন, বাড়ি চট্টগ্রামে। অন্য দু’জনের একজন দীপঙ্কর। অন্য আরেকজনের বিস্তারিত পরিচয় সংগ্রহের চেষ্টা চলছে। ডিবির একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিবির অতিরিক্ত কমিশনার আবদুল বাতেন বলেন, নেপালিদের পালাতে সহায়তাকারীদের শনাক্ত করা গেছে। এ বিষয়ে ডিবির একটি টিম কাজ করছে। ডিবির একজন কর্মকর্তা বলেন, সহায়তাকারী তিনজনই একটি গোয়ন্দা সংস্থার সদস্য। কেন তারা ওই বাসায় প্রবেশ করেছিল বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে। এ নিয়ে ডিএমপির বিভিন্ন ইউনিটের চৌকস কর্মকর্তারা কাজ করছেন।

মঙ্গলবার ডিএমপি মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে পুলিশের কাউন্টার টেরোরিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইম ইউনিটের (সিটিটিসি) প্রধান অতিরিক্ত কমিশনার মনিরুল ইসলাম বলেন ‘দুঃখজনকভাবে হলেও সত্য ক্যাসিনো পরিচালনার সঙ্গে জড়িত নেপালিদের পালাতে সহায়তাকারীদের পুলিশ সদস্য বলে প্রচার করা হচ্ছে। সিসি ক্যামেরার ফুটেজে দেখা গেছে, সহায়তাকারীদের একজনের কাছে ওয়াকিটকি ছিল।

পুলিশের পাশাপাশি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী বলতে যাদের বোঝানো হয় সব সংস্থা এবং বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা ওয়াকিটকি ব্যবহার করে। বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানও ওয়াকিটকি ব্যবহার করে। সহায়তাকারীরা পুলিশ সদস্য এখন পর্যন্ত এমন কোনো তথ্য-প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

তথ্য পেলে সেটি যাচাই করে প্রকাশের অনুরোধ জানিয়ে তিনি সাংবাদিকদের বলেন, পরিচয় যাচাই না করে বাহিনীর বিরুদ্ধে এভাবে অভিযোগ তুললে বাহিনীর মনোবলের ঘাটতি দেখা দিতে পারে। পাশাপাশি জনমনেও পুলিশ সম্পর্কে বিরূপ ধারণা সৃষ্টি হতে পারে। তথ্য পেলে সেটি যাচাই-বাছাই করে দায়িত্ব নিয়ে প্রকাশ করতে হয়। যে কোনো ধরনের তথ্য প্রকাশের আগে যাচাই-বাছাই করা উচিত।

নেপালিদের পালাতে সহায়তাকারীদের চিহ্নিত করতে বিভিন্ন টিম কাজ করছে জানিয়ে মনিরুল বলেন, বিষয়টি ঢাকা মহানগর পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) পাশাপাশি বিভিন্ন টিম কাজ করছে। গত বুধবার রাজধানীর মতিঝিলের ক্লাবপাড়ায় ক্যাসিনোবিরোধী অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় ক্যাসিনো পরিচালনার সঙ্গে জড়িত ১৯ নেপালিকে সেগুনবাগিচার একটি বাসা থেকে পালাতে সহায়তা করে তিন ব্যক্তি।

সিসি ক্যামেরা ফুটেজে দেখা গেছে, রাত সাড়ে ১০টার দিকে সাদা পোশাকের তিনজন পুলিশ পরিচয়ে সেগুনবাগিচার ৬/সি নম্বর বাড়ির পাঁচ তলায় যান। তাদের মধ্যে শার্ট ইন করা একজনের হাতে ওয়াকিটকি ছিল।

ভবনের ৫ তলার ফ্ল্যাটে থাকতেন কয়েকজন নেপালি। ভেতরে প্রবেশের ঘণ্টাখানেক পর রাত ১১টা ২৮ মিনিটে তারা বেরিয়ে যান। বের হওয়ার সময় তাদের একজনের হাতে একটি ব্যাগ দেখা যায়, তবে উপরে ওঠার সময় ব্যাগটি ছিল না। এর পর ওই ফ্ল্যাটে গেস্ট পরিচয়ে আরও কয়েকজন নেপালি ঢোকেন। রাত ৩টার কিছু আগে ফ্ল্যাট থেকে একে একে বেরিয়ে যান ১৯ নেপালি।

 

সূত্র: যুগান্তর

আরও দেখুন

এরকম আরও খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Close